Thursday, February 2
Shadow

২য় সাময়িক পরীক্ষার কৃষি শিক্ষা প্রশ্নপত্র – ৮ম শ্রেণী

২য় সাময়িক পরীক্ষা-২০২০ইং
৮ম শ্রেণী
বিষয়ঃ কৃষি শিক্ষা
সময়ঃ ২ ঘণ্টা                                                                       পূর্ণমান-৬০

আটটি প্রশ্ন থাকবে ৬টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবেঃ

১। বগুড়ার মিন্টু মিয়া যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে ফুল চাসের ওপর প্রশিক্ষণ নিয়ে উর্বর দো-আঁশ মাটির ৪ শতক জমিতে গোলাপের চাষ শুরু করল। মিন্টু মিয়ার গোলাপ চাষের আধুনিক চাষ পদ্ধতি যথাযথভাবে প্রয়োগ করায় তার বাগানে বড় বড় ফুল উৎপাদন হল এবং গড়ে ফুল প্রতি তিন টাকা হারে বিক্রি করল। মিন্টু মিয়র এই বিশাল সাফল্য দেখে এলাকার অনেক বেকার যুবক গোলাপ চাষে উদ্বুদ্ধ হল।
(ক) দুই রং বিশিষ্ট একটি গোলাপের জাতের নাম লিখ।
(খ) গোলাপ গাচের গোড়ায় পানি সেচের বিষয়টি ব্যাখ্যা কর।
(গ) বাগানে বড় বড় ফুল উৎপাদনে মিন্টু মিয়া কোন বিষয়গুলির প্রতি যথাযথ লক্ষ রেখেছিল ব্যাখ্যা কর।
(ঘ) গোলাপ চাষে মিন্টু মিয়ার সাফল্য এবং অন্যদের গোলাপ চাষে উদ্বুদ্ধ হওয়ার বিষয়টি মূল্যায়ন কর।

২। এক অসচ্ছল কৃষক পরিবারের মেয়ে মেনা ১০ম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী। একদিন নিজেদের বাঁশ বাগানের পাশে বসে ৯ম শ্রেণীতে পড়াকালীন মুরগি পালনের ধারণা থেকে কিছু মুরগি পালনের সিদ্ধান্ত নিল। সে জুনিয়ার বৃত্তির টাকা ও মায়ের কাছ থেকে কিছু টাকা দিয়া ২০টি সংকর ও বিদেশি জাতের মুরগি পালন করতে লাগল। পদ্ধতি হিসাবে সে আধাছাড়া অবস্থায় মুরগি পালন পদ্ধতি বেছে নিল।
(ক) মুরগি পালনের প্রধান পদ্ধতিগুলোর নাম লেখ।
(খ) মিনার আধাছাড়া অবস্থায় মুরগি পালনের ১টি কারণ ব্যাখ্যা কর।
(গ) আধাছাড়া অবস্থায় মিনার পোষা মুরগিগুলো পালনের জন্য একটি ঘড়ের নক্শা আঁক।
(ঘ) ছাড়া অবস্থায় মুরগি পালন না করে কেন আধাছাড়া অবস্থায় মুরগি পালনের সিদ্ধান্ত নিল তা যুক্তি সহকারে ব্যাখ্যা কর।

৩। মাজুল তার ১০০টি ডিমপাড়া মুরগির খামারে উপরোক্ত তালিকা অনুসারে পরিমিত খাদ্য দিয়ে পর্যাপ্ত ডিম পেতে লাগল। কিন্তু ডিমগুলোর খোসা নরম থাকায় পরিবহনে অনেক ডিম নষ্ট হল।
(ক) সুষম খাদ্য কী?
(খ) মাজুলের খামারের ডিমগুলোর খোসা নরম থাকার কারণ ব্যাখ্যা কর।
(গ) মাজুলের খামারে এক সপ্তাহে কী পরিমাণ খাদ্য লাগতে পারে তার একটি তালিকা তৈরি কর।
(ঘ) মাজুলের খামার থেকে কাঙ্খিত সাফল্য পেতে হলে সুষম খাদ্য প্রদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উক্তিটির যথার্থতা মূল্যায়ন কর।

৪। গ্রামের দারিদ্র গৃহবধু কাজল যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে ১০০টি ২০ সপ্তাহ বয়সের উন্নত জাতের হোয়াইট লেগহর্ণ মুরগি দিয়ে খামার স্থাপন করলেন। যথাযথ খামার ব্যবস্থাপনায় অল্প দিনেই তার খামার থেকে ডিম পেতে শুরু করলো। সকল ডিম একসাথে বিক্রি করতে না পারায় তিনি সমস্যায় পড়লেন এবং কিছু ডিম পঁচে নষ্ট হয়ে গেল। তিনি চিন্তিত হয়ে পশু কর্মকর্তার পরামর্শে দেশীয় পদ্ধতিতে ডিম সংরক্ষণ করে সমস্যার সমাধান করলেন।
(ক) ডিম সংরক্ষণ কী?
(খ) পশু কর্মকর্তা গৃহবধু কাজলের দেশীয় পদ্ধতিতে ডিম সংরক্ষণের পরামর্শ দানের কারণটি ব্যাখ্যা কর।
(গ) গৃহবধু কাজলের খামারের ১ সপ্তাহে উৎপাদিত সকল ডিম সোডিয়াম সিলিকেট দ্বারা সংরক্ষণের পদ্ধতিটি ব্যাখ্যা কর।
(ঘ) বাংলাদেমের গ্রামঞ্চলের খামারগুলোতে গৃহবধু কাজলের ডিম সংরক্ষণ পদ্ধতি কী ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে মতামত দাও।

৫। শরীফার খামারের মুরগিগুলো হঠাৎ অসুস্থ হতে শুরু করল। কিন্তু মুরগির মুখের আশে পাশে ডানার নিচে লাল দাগ দেখা যায়। কিছু মুরগির চোখে ফোসকা উঠেছে। কিছু মুরগি খেতে পারছে না। এমন অবস্থায় পশু ডাক্তারের পরামর্শ নিলে বললেন- খামারের মুরগিগুলো ফাউলপক্সে আক্রান্ত। ডাক্তার সাহেব ফাউলপক্স হলে কী করণীয় তা শরীফাকে ভালোভাবে বুঝিয়ে দিলেন। শরীফা সেই অনুযায়ী মুরগির যত্ন নিয়ে অধিকাংশ মুরগিকেই সুস্থ করে তোলে।
(ক) ফাউলপক্স কী?
(খ) রোগটি মুরগির ওপর কী প্রভাব ফেলে ব্যাখ্যা কর।
(গ) ডাক্তার সাহেবের পরামর্শ অনুযায়ী শরীফা মুরগির কীভাবে যত্ন নিল।
(ঘ) ফাউলপক্স রোগটির ব্যাপারে মুরগির খামারিদের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যায় তা ব্যাখ্যা কর।

৬। কোয়েল বাংলাদেমের পোল্ট্রি শিল্পে নতুন অতিথি। এর পালনে নিয়ম পোল্ট্রি চাষিদের জানা দরকার চিন্তা করে যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলোতে কোয়েল পালন বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। শামীমা যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কোয়েল পালনে বিভিন্ন পর্যায় যেমন বাচ্চা পালন খড়, তাপ, পানি, আলো এবং খাদ্য ব্যবস্থাপনা হাতে কলমে শিক্ষা নেয় এবং নিজের বাড়িতে কোয়েল পালন শুরু করে। একদিন দেখে কোয়েলের বাচ্চাগুলো হুভারের নিচে জড় হয়ে আছে।
(ক) একটি পূর্ণ বয়স্ক কোয়েলের ওজন কত?
(খ) শামীমা কোয়েল পালনে সিদ্ধান্ত নিলেন কেন?
(গ) কোয়েল বাচ্চাগুলো হুভারের নিচে জড় হয়ে ছিল কেন এবং শামীমা কী ব্যবস্থা নিয়েছিল।
(ঘ) কোয়েল পালন দেশের পোল্ট্রি শিল্পের জন্য বিরাট সম্ভাবনাময় কথাটি যুক্তিসহ উপস্থাপন কর।

৭। রেজাউল নিজেদের ৩টি পুকুরে মিশ্র চাষ পদ্ধতিতে কার্প জাতীয় মাছের চাষ শুরু করল। যথাযথভাবে পুকুর প্রস্তুত করে পরিমিত সম্পূরক খাদ্য সরবরাহ করার পরও রেজাউল দেখল তার পুকুরের মাছের বৃদ্ধি আশানুরূপ হচ্ছে না। এমন অবস্থায় সে এলাকার মৎস্য কর্মকর্তার শরণাপন্ন হলে তিনি পুকুরগুলো পর্যবেক্ষণ করে চুন প্রয়োগের পরামর্শ দিলেন। বছর শেষে রেজাউলের মাছ চাষ বেশ লাভবান হল।
(ক) কার্প জাতীয় মাছের মিশ্র চাষ কী?
(খ) পুকুরে পোনা মজুদের পরিমিত সংখ্যা বলতে কী বোঝ?
(গ) মৎস্য কর্মকতা রেজাউলের পুকুরে চুন প্রয়োগের পরামর্শ দিলেন কেন?
(ঘ) রেজাউলের মাছ চাষের যথাযথ পদ্ধতি তার এলাকার মাছ চাষিদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে কী ভূমিকা পালন করবে তা ব্যাখ্যা কর।

৮। গলদা চাষি করিম মিয়ার সাফল্য দেখে মৎস্য চাষি রহিম মিয়া তার খালের পাশের ১০ শতকের একটি পুকুরে গলদা চিংড়ি একক চাষের সিদ্ধান্ত নিলেন। তার পুকুরের মাটি দো-আঁশ, পানির গভীরতা প্রায় ১-৫ মিটার এবং পুকুরের পাড়ে বড় কোন গাছপালা নেই। তিনি পুকুরটির প্রয়োজনীয় সংস্কার ও সার প্রয়োগের কাজও যথানিয়মে করলেন। তিনি খাদ্য প্রয়োগে নিচের তালিকাটি অনুসরণ করে অধিক সাফল্য পেলেন।
(ক) মাছ কী?
(খ) গলদার একটি প্রধান বৈশিষ্ট্য ব্যাখ্যা কর।
(গ) রহিম মিয়ার পুকুরের জন্য ষষ্ঠ মাসের দৈনিক খাদ্য তালিকা তৈরি কর।
(ঘ) গলদা চিংড়ি চাষে রহিম মিয়ার সাফল্যের বিভিন্ন দিক বিশ্লেষণ কর।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *